1. md.zihadrana@gmail.com : admin :
জনপ্রিয়তার শীর্ষে উপজেলা চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী ইন্জিনিয়ার গুলফাম - দৈনিক সবুজ বাংলাদেশ

২৬শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ । সকাল ৯:২১ ।। গভঃ রেজিঃ নং- ডিএ-৬৩৪৬ ।।

সংবাদ শিরোনামঃ
শার্শায় মিটার ‘রিডিং’ না দেখেই অফিসে বসে করা হচ্ছে বিদ্যুৎ বিল,গ্রাহকদের মাঝে ক্ষোভ বাংলাদেশ সংবাদপত্র শিল্প পরিষদের ৮ম সভা অনুষ্ঠিত: সংবাদপত্র শিল্প টিকিয়ে রাখতে প্রধানমন্ত্রীর  সহযোগিতা কামনা ভেজাল কোম্পানীর ভেজাল বাণিজ্যে স্বাস্থ্যসেবায় হুমকি  পত্রিকার প্যাডে সুইসাইড নোটসহ নদীতে মিলল যুবকের অর্ধগলিত লাশ ঢাকাস্থ ভোলা সাংবাদিক ফোরামের সভাপতি আহসান কামরুল, সম্পাদক জিয়াউর রহমান জমি দখল করতে না পারায় ইমরান কর্তৃক খালেদ আল মামুনের বিরুদ্ধে ফেসবুকে অপপ্রচার  প্রবেশন সুবিধা পেল জবি শিক্ষার্থী তিথি কিশোরগঞ্জ জেলা পরিষদের হিসাব রক্ষক শত কোটি টাকা অবৈধ সম্পদ অর্জনে, দুদকে অভিযোগ লেগুনা ড্রাইভার সোহেল ৩ থানায় গড়ে তুলেছে বিশাল এক সন্ত্রাসী বাহিনী যশোরে শীর্ষ সন্ত্রাসী জনপ্রতিনিধি দ্বারা খুন-১ আহত-১
জনপ্রিয়তার শীর্ষে উপজেলা চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী ইন্জিনিয়ার গুলফাম

জনপ্রিয়তার শীর্ষে উপজেলা চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী ইন্জিনিয়ার গুলফাম

আজিজুর রহমান বাবু, জেলা প্রতিনিধি, শরীয়তপুর : নির্বাচন প্রক্রিয়ায় একাধিক প্রার্থী থাকতে পারে। তবে এককাট্টা সমর্থক হয়ে এমন কিছু বলা উচিত হবে না। যা প্রতিপক্ষ প্রার্থীর সমর্থকেরা আহত হতে পারেন।

গনতান্ত্রিক রাষ্ট্রে ভোটিং সিষ্টেম একটি নাগরিক অধিকার। একটি ভোটের মাধ্যমে দেশের যে কোন স্হানীয় নির্বাচনে পছন্দের প্রার্থীর প্রতিফলন ঘটে থাকে। সেই প্রতিফলনে বাধা সৃষ্টি হলে কট্টর ভোটাররা মানসিক হতাশায় ভোগেন – ভাবনা পড়েন। মনে মনে উভয় সংকটে পড়েন – কী জানি কী হয় ? আবার কখনো পদ পদবী হারানোর ভয়ে স্নায়ু চাপে আতংকিত হন।

নির্বাচন পরবর্তী কোন বিজয়ী প্রার্থী কিন্তু ভোটারদের পরিবারকে কামাই রুজি করে খাওয়ায় না। তাঁরা নির্বাচনের নির্দিষ্ট সময়ে উত্সব মুখোর আমেজে ভরপুর থাকে। এঁরা আনন্দের সাথে নির্বাচনের সকল মুভমেন্ট উপভোগ করে – জয় পরাজয় নিশ্চিত করে।

বিগত উপজেলা নির্বাচনে হুমায়ুন কবির মোল্লা দু-দুবার উপজেলা চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী হয়ে দু’বার ই বিজয়ী হয়ে ভেদরগঞ্জ উপজেলা পরিষদে চেয়ারম্যানের কার্যক্রম পরিচালনা করেছেন।

উপজেলায় অন্তর্ভুক্ত ইউনিয়ন গুলোর উন্নয়ন খাতে উপজেলা পরিষদের বাজেট থেকে কোন বরাদ্দ ইউনিয়ন পরিষদ পেয়েছে কিনা কখনো শুনিনি। জনমনে এমন প্রশ্ন হওয়াটা খুবই স্বাভাবিক।

হয়তো কেউ বলতে পারেন – আমাদের শরীয়তপুর-০২ এর গর্বিত অভিভাবক মাননীয় সাংসদ একেএম এনামুল হক শামীম এমপি মহোদয় কতৃক তো হচ্ছেই – আর দরকার কী ? এসব ধোপে টিকবে না কারণ জননেতার কৃতিত্ব জননেতাই ফিডব্যাক পাবেন।

তারপরও বলবো উপজেলা পরিষদের একটা নির্দিষ্ট বাজেট এবং কর্ম পরিকল্পনা রয়েছে। সেটির বাস্তবায়ন কী কোন ইউনিয়নে হয়েছে ? কেউ বলতে পারবেন ?

জনগণ বিশ্বাস করে, থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি জনাব হুমায়ুন কবির মোল্লা একজন বিচক্ষণ রাজনৈতিক সংগঠক, তৃনমূল পর্যায়ে তাঁর দূরদর্শিতাও রয়েছে। তা অস্বীকার করবার জো নেই…. তবে তিনি বিগত দুই টার্মে নির্বাচিত হয়ে জনতার প্রকৃত সেবক হিসেবে দৃষ্টান্ত স্হাপন করতে পারেননি।

অপরপক্ষে নবাগত উপজেলা চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী ইন্জিনিয়ার জনাব ওয়াছেল কবির গুলফাম তৃনমূল পর্যায়ে এক্কেবারে নতুন হওয়ায় তাকে জনগন লুফে নিয়েছে। কারণ তাঁর ব্যক্তিগত পরিচ্ছন্ন ইমেজ নির্বাচনের অন্যতম টার্নিং পয়েন্ট। জনগণ এতটুকু আস্হা রাখতে পারছে যে, তাঁকে ভোট দিয়ে উপজেলা চেয়ারম্যান বানাতে পারলে – আর কিছু দিতে পারেন আর না পারেন কমপক্ষে ভালো আচরণ প্রদর্শন করে আগত উপকার ভোগীদের সম্ভাষণ জানিয়ে বুকে টানতে ভুল করবেন না।

একজন সুশিক্ষিত নেতা জনগনের কাছে সবচেয়ে বেশী আদরনীয় এবং কাংক্ষিত। কারণ উক্ত নেতা তাঁর শিষ্টাচারের মাধ্যমে এলাকার আবালবৃদ্ধবনিতার কাছে ভালোবাসার পাত্র।

মানবতা, মনুষ্যত্ব আর নাগরিক সচেতনতা যে নেতার অন্তরে বসবাস করে। তিনি কখনোই জনবিচ্ছিন্ন হতে পারেন না। ইতিহাস বারবার সেই সাক্ষী ই বহন করে আসছে।

জনগণ সকল ক্ষমতা প্রদানের হাতিয়ার। তাই বিশ্বাসী প্রার্থী ” ইন্জিনিয়ার জনাব ওয়াছেল কবির গুলফাম ” – মনে করেন ভেদরগঞ্জের সকল শান্তি প্রিয় জনতা তাঁকে প্রত্যাখ্যান করবে না । সততার টানে, বিশ্বস্ততার টানে আগামীর ভেদরগঞ্জ উপজেলা পরিষদের নির্বাচনে জনগণ বিপুল ভোটে জয়যুক্ত করবেন।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2021
ভাষা পরিবর্তন করুন »