1. md.zihadrana@gmail.com : admin :
ঢামেক এর পরিচালক নাজমুলের সেল্টারে বেপরোয়া রাজু সিন্ডিকেট - দৈনিক সবুজ বাংলাদেশ

২২শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ । বিকাল ৪:৪২ ।। গভঃ রেজিঃ নং- ডিএ-৬৩৪৬ ।।

সংবাদ শিরোনামঃ
বটিয়াঘাটার মাখঝানুল উলুম নুরানী ও মহিলা মাদ্রাসার সুপারের বিরুদ্ধে অনৈতিক কর্মকান্ডের প্রতিবাদ করায় চাকরিচ্যুত হলো এক শিক্ষিকা  বিএমইটির ১১ স্মার্ট কার্ড জালিয়াতি: বিদেশ যেতে না পেরে দুর্ভোগে কর্মীরা কেরানীগঞ্জ প্রেসক্লাবে সভাপতি আব্দুল গনী সাধারণ সম্পাদক মোস্তফা কামাল প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৪৪ তম স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে বঙ্গমাতা সাংস্কৃতিক জোটের আলোচনা সভা ও দোয়া অনুষ্টিত মাদারীপুরে প্রতিবন্ধী ভাতার টাকা দুই সহকারী সমাজসেবা অফিসারের পকেটে যমুনা লাইফের গ্রাহক প্রতারণায় ‘জড়িতরা’ কে কোথায় মেয়র বলে কথা: একাধিক পত্রিকায় পৌরসভার দুর্নীতি ও ভূমিদুস্যতার সংবাদ প্রকাশিত হলেও নিরব প্রশাসন বাংলাদেশে উদ্বোধন হলো টাটা মটরস-এর ‘টাটা যোদ্ধা ঔষধ প্রশাসনের দুর্নীতিবাজ কর্মকর্তাদের প্রত্যাক্ষ মদদে ইউনানী, আয়ুর্বেদিক কোম্পানির প্রাণঘাতী ঔষধে বাজার সয়লাব স্নাতকের মেধা তালিকায় তৃতীয় স্থানে অবন্তীকা
ঢামেক এর পরিচালক নাজমুলের সেল্টারে বেপরোয়া রাজু সিন্ডিকেট

ঢামেক এর পরিচালক নাজমুলের সেল্টারে বেপরোয়া রাজু সিন্ডিকেট

স্টাফ রিপোর্টার:
রাজু এন্টারপ্রাইজ, তৌসিফ এন্টারপ্রাইজ এর মালিক মিয়া মোহাম্মদ খালেদ রাজু ও পরিচালক বিগ্রেডিয়ার জেনারেল ডাঃ নাজমূল হক, ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল। তারা মিলে মিশে হাতিয়ে নিয়েছেন শত কোটি টাকা।
বিগ্রেডিয়ার জেনারেল ডাঃ নাজমূল হক পরিচালক হিসেবে দায়িত্ব পালন এর পর থেকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল তার কাছে হয়ে উঠে আলাদীনের চেরাগ রুপে। তিনি গড়ে তুলেছেন, রাজু এন্টারপ্রাইজ ও তৌসিফ এন্টারপ্রাইজ এর মালিক আব্দুল খালেক রাজুর নেতৃত্বে বিশাল টেন্ডার সিন্ডিকেট। এই রাজুর সিন্ডিকেটের বাহিরে কোন কাজই হয়নি এই হাসপাতালে। প্রতিটি টেন্ডার পেয়েছেন এই রাজু সিন্ডিকেট।
2022-2023 অর্থ বছরের 23-02-2023 তারিখের ই-জিপি আইডি- 781529 (Supply of Bakery and Confectionary) 3 নম্বরে থাকা রাজুর প্রতিষ্ঠান হোসাইন সাকিক ইন্টারন্যাশনাল বিডি পায় 1 নম্বরে থাকা প্রিতিষ্ঠান থেকে প্রায় 1 কোটি 70 লক্ষ টাকা বেশিতে রাজুর প্রতিষ্ঠান হোসাইন সাকিক ইন্টারন্যাশনাল বিডি কে কাজ দিয়েছে।
2022-2023 অর্থ বছরের 23-02-2023 তারিখের ই-জিপি আইডি- 781527 (Supply of Vegetables) 5 নম্বরে থাকা রাজু বাহিনীর প্রতিষ্ঠান রাহাত এন্টারপ্রাইজ 1 নম্বরে থাকা প্রিতিষ্ঠান থেকে প্রায় 41 লক্ষ টাকা বেশিতে কাজ দিয়েছে।
গত ২১-২২ অর্থ বছরের টেন্ডার নং- ৬২৩৭১১ (Supply of Chicken Meat, Mutton, Fish & Chicken Egg), 5 নম্বরে থাকা রাজুর প্রতিষ্ঠান হোসাইন সাকিক ইন্টারন্যাশনাল বিডি পায় 1 নম্বরে থাকা প্রিতিষ্ঠান থেকে প্রায় 51 লক্ষ টাকা বেশিতে রাজুর প্রতিষ্ঠান হোসাইন সাকিক ইন্টারন্যাশনাল বিডি কে কাজ দিয়েছে।
2021-2022 অর্থ বছরের 28-11-2021 তারিখের ই-জিপি টেন্ডার আইডি- 623712, 623713, 623714 এই তিনটা টেন্ডারের ওপেনিং রেজাল্ট এখন পর্যন্ত প্রকাশ করেনিই।
এমন কি সর্বশেষ ওডিএম টেন্ডার নং-০৪/২৩-২৪ টিও রাজু সিন্ডিকেট এর হাতে দিয়ে দেন ডাঃ নাজমুল। এই রাজুই বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশনের সাবেক সভাপতি ও বীর মুক্তিযোদ্ধা মোস্তফা জালাল মহিউদ্দিনের হাত ধরেই ঢাকা মেডিকেল কলেজ হসপিটালে প্রবেশ করেন। রাজু ও তার বাহিনীর আরো প্রতিষ্টান হলো
১.হোসেন সাকিক ইন্টারন্যাশনাল বিডি।, ২. মেসার্স রাজু এন্টারপ্রাইজ, ৩. ওয়ারসী ইন্টারন্যাশনাল। ৪. মেসার্স তাওসিফ এন্টারপ্রাইজ, 5. রাহাত এন্টারপ্রাইজ 6. চিত্রা এন্টারপ্রাইজ, । বর্তমান অবস্থা যা হয়েছে, রাজুর কথার বাহির কোনো কাজ ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে হয় না। এক কথায় বলা যায় বিগ্রেডিয়ার নাজমুল হকের ডান হাত মিয়া মোহাম্মদ খালেদ রাজু যার কথায় আউটসোর্সিং লোক নিয়োগ থেকে শুরু করে হেভি মেডিকেল ইকুইপমেন্ট, মেডিসিন সরবরাহ, রোগীদের খাদ্য সরবরাহ, রিয়েজেন্ট সাপ্লাই সহো সকল কাজ সম্পৃক্ত হয়। এমন কঠিন শর্তাবলী দেয়া হয় প্রতিটি টেন্ডারে যা মিয়া মোহাম্মদ খালেদ রাজু ছাড়া কেউ শর্ত পূরন করতে পারে না। ডেইলি বেসিক এর নামে চলছে লোক নিয়োগের রমরমা ব্যবসা। বিগ্রেডিয়ার নাজমুল হক এর চমকের শেষ নেই। দায়িত্ব পাওয়ার পর থেকে চমক তো দেখিয়েছেন, যাওয়ার সময় আরো বড় চমক দেখিয়ে যাওয়ার পরিকল্পনায় এখন মগ্ন। যার নমূনা ২০২৩-২০২৪ ও ২০২4-২০২5 ও অর্থ বছরের সব টেন্ডার ভাগ বাটোয়ারা করে ফেলেছেন। ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল এর সব কাজ নিজের হাতে নিজের সিন্ডিকেট এর কোম্পানীকে দিয়ে ও থামেন নাই তিনি সুকৌশলে আগামী ২ বছরের রুগীদের খাদ্যের টেন্ডার ভাগিয়ে নিতে এ বছরের ২৬ ডিসেম্বর নতুন টেন্ডার ঘোষণা করে ছুটি নিয়ে পাড়ি জমিয়েছেন সুদুর আমেরিকা। যাতে নতুন ডাইরেক্টর দায়িত্ব বুঝে নিতে না পারেন এবং চলমান সাপ্লাই এর সকল কাজ,ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল এর পুরাতন মালামাল বিক্রয় এবং রোগীদের খাবার সরবরাহ এর সব কাজ শেষ হয়ে যায়।
অন্যদিকে রাজু আর ডাঃ নাজমুল আউটসোর্সিংয়ের মাধ্যমে ৩৫ জন লোক নিয়োগ দিয়ে প্রতিজনের কাছ থেকে ২ লাখ টাকা করে হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগ দৃশ্যমান হয়। বিগত দিনে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পাঁচ পদে আউটসোর্সিংয়ের মাধ্যমে ১৭৬ জন লোক নিয়োগে অনুমোদন দেয় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়। সম্প্রতি 5 জন ওয়াড মাষ্টার পদে পদোন্নতি দিয়ে জন প্রতি 15 লক্ষ টাকা করে হাতিয়ে নিয়েছে।
অভিযোগ রয়েছে, হাসপাতাল প্রশাসনকে ম্যানেজ করে তারা কাজটি নিজের আয়ত্তে নিয়েছিলেন। প্রকাশ্যে কোনো টেন্ডার না হলেও রাজু এন্টারপ্রাইজ আউটসোর্সিংয়ের কাজ পেয়েছে বলে প্রচারণা চালানো হয়। এরপর চাকরি প্রত্যাশীরা কিছু দালালের সহযোগিতায় কর্মচারী নেতা ও রাজ এ সুবাদে তারা চাকরি প্রত্যাশীদের কাছ থেকে ১ থেকে দেড় লাখ টাকা করে আদায় করেন। আর যারা একাধিক মাধ্যম হয়ে চাকরি নিতে এসেছেন তাদের গুনতে হয়েছে ২ লাখ টাকা। এ সঙ্ঘবদ্ধ চক্রের ঘুষ বাণিজ্য যখন রমরমা ঠিক সেই মুহূর্তে আউটসোর্সিংয়ে নিয়োগের বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে হাইকোর্টে একটি রিট আবেদন করেন পারভেজ রানা নামে একজন। ওই রিটের পরিপ্রেক্ষিতে হাইকোর্ট আউটসোর্সিং জনবল নিয়োগে ছয় মাসের স্থগিতাদেশ দেন। এরপরই দিশেহারা সংশ্লিষ্টরা। অন্যদিকে চাকরি পাওয়ার অনিশ্চয়তায় লাখ লাখ টাকা ঘুষ দেয়া লোকজন চিন্তায় পড়ে যান। যেসব মাধ্যমে তারা দিয়েছেন তাদের দ্বারস্থ হন টাকা ফেরত পেতে। এখন তারা আছেন সীমাহীন দুশ্চিন্তায়।
বিষয়ে মন্তব্য জানতে ডাঃ নাজমুলের মুঠোফোনে বারবার কল দিয়েও পাওয়া যায়নি। পরে খবর নিয়ে জানা যায় তিনি বর্তমানে আমেরিকাতে অবস্থান করছেন। অন্যদিকে উপ পরিচালক ডা: খালেকুজ্জামান এর সাথে বার বার চেষ্টা করেও কথা বলা সম্ভব হয়নি।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2021
ভাষা পরিবর্তন করুন »