1. md.zihadrana@gmail.com : admin :
বাবা প্রবাল চৌধুরীর ৭৫তম জন্মদিনে রঞ্জন ও শুভমিতার রোমান্টিক গান - দৈনিক সবুজ বাংলাদেশ

১৮ই এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ । রাত ১১:৪৩ ।। গভঃ রেজিঃ নং- ডিএ-৬৩৪৬ ।।

সংবাদ শিরোনামঃ
চৌদ্দগ্রামে পুকুরের মালিকানা নিয়ে মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের উপর হামলা ঋণ খেলাপী রতন চন্দ্রকে কালবের পরিচালক পদ থেকে অপসারন দাবি নীরব ঘাতক নীরব লালমাই অবৈধভাবে ফসলি জমির মাটি নিউজ করতে গিয়ে হুমকি, থানায় জিডি বিশ্বনাথের পৌর মেয়রের বিরুদ্ধে সাত কাউন্সিলরের পাহাড়সম অভিযোগ বিশ্বনাথে ১১ চেয়ারম্যান প্রার্থী’সহ ২০ প্রার্থীর মনোনয়নপত্র দাখিল মুখে ভারতীয় পণ্য বয়কট, অথচ ভারতেই বাংলাদেশি পর্যটকের হিড়িক শার্শায় সন্ত্রাস ও মাদকের বিরুদ্ধে সংবাদ প্রকাশের জেরে সাংবাদিকের উপর হামলা গণপূর্ত অধিদপ্তরের মহা দূর্নীতিবাজ ডিপ্লোমা মাহাবুব আবার ঢাকা মেট্রো ডিভিশনে! ৫ দিন বন্ধের পর আবার সচল বেনাপোল বন্দর
বাবা প্রবাল চৌধুরীর ৭৫তম জন্মদিনে রঞ্জন ও শুভমিতার রোমান্টিক গান

বাবা প্রবাল চৌধুরীর ৭৫তম জন্মদিনে রঞ্জন ও শুভমিতার রোমান্টিক গান

 

বিনোদন রিপোর্ট ঃ

স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রের শব্দসৈনিক ও বাংলাদেশের প্রখ্যাত কন্ঠশিল্পী প্রয়াত প্রবাল চৌধুরীর ৭৫তম জন্মদিন উপলক্ষে মুক্তি পেয়েছে দুই বাংলার স্বনামধন্য মেলোডি কুইন শুভমিতা ও বাংলাদেশের সুস্থধারার সংগীতের জনপ্রিয় শিল্পী রঞ্জনের রোমান্টিক গান। দন্ত-চিকিৎসক ও ৫ বারের জাতীয় টেবিল টেনিস চ্যাম্পিয়ন এবং জাতীয় দল থেকে স্বেচ্ছায় অবসর নেয়া মানস গানের জগতে রঞ্জন নামে পরিচিত। বাবার ৭৫তম জন্মদিনের উপহার এই গান বলেন রঞ্জন চৌধুরী।গানটি রেকর্ড করা হয়েছে কলকাতার ভাইব্রেশনস সটুডিওতে। গানটির সংগীতায়োজন যৌথভাবে করেছেন বাংলাদেশের সব্যসাচী রনি এবং কলকাতার সুদীপ্ত সাহা। চট্টগ্রামের কে.এস.ডিজিটাল সটুডিও এবং কলকাতার ভাইব্রেশনস সটুডিওতেই সংগীতায়োজন হয়েছে। গানটি প্রকাশের পর থেকেই রঞ্জন চৌধুরীর facebook page এ শ্রোতাদের প্রশংসা আর অভিনন্দনের জোয়ারে ভাসছেন দুই শিল্পী। মাত্র তিন দিনেই আড়াই লক্ষ ভিউ হয়। দুই বাংলার শ্রোতাদের অভিব্যক্তিই প্রমাণ করে মেলোডিয়াস গান সবসময়ই বেঁচে থাকে। গত বছর ঈদ উল
আযহাতে শুভমিতা ও রঞ্জনের গাওয়া ‘বল তো তুমি’ গানটি শ্রোতাদের মাঝে ব্যাপকভাবে প্রশংসিত হয়। এরপর থেকে দুই বাংলার শ্রোতারা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আবার দুজনের মেলোডিয়াস রোমান্টিক গান শোনার ইচ্ছা প্রকাশ করতে থাকেন। শ্রোতাদের অনুরোধের প্রতি সম্মান রেখেই আবার এই প্রয়াস। গানটিতে বাংলাদেশ ও পশ্চিমবঙ্গের বিখ্যাত যন্ত্রশিলপীরা তাঁদের নিজ নিজ যন্ত্র বাজিয়েছেন । ভাইব্রেশনস সটুডিওতে গানটির শুটিং সম্পন্ন হয়েছে। গানটির কথা লিখেছেন মো: ওবায়দুললাহ এবং সুর করেছেন রঞ্জন চৌধুরী। গানটি নিয়ে রঞ্জন বলেন, গানটির সংগীতায়োজনের সময় কম্পোজার সব্যসাচী রনি সন্তুর, বাঁশী,বেহালা ও স্যাক্সোফোনের প্রয়োজনীয়তা অনুভব করলে কলকাতার স্বনামধন্য কম্পোজার সুদীপ্ত সাহার মাধ্যমেই পশ্চিমবঙ্গের প্রথম সারির যন্ত্রশিল্পীদের দিয়ে এ গানের কম্পোজিশন কলকাতায় সম্পন্ন করার সিদ্ধান্ত নিই। কলকাতার স্বনামধন্য সাউন্ড ইঞ্জিনিয়ার গৌতম বসু গানটির মিক্স মাস্টারিং করেছেন। বাবার জন্মদিনকেই উপলক্ষ করে গানটি প্রকাশিত হয় রঞ্জন চৌধুরীর ফেসবুক পেজ এবং YouTube চ্যানেল এ।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2021
ভাষা পরিবর্তন করুন »