1. md.zihadrana@gmail.com : admin :
মো:পুরে উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে ফেসবুকে জঘন্য অপপ্রচার ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে পোষ্টদাতা যুবক গ্রেফতার - দৈনিক সবুজ বাংলাদেশ

১৯শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ । দুপুর ২:৩২ ।। গভঃ রেজিঃ নং- ডিএ-৬৩৪৬ ।।

সংবাদ শিরোনামঃ
মো:পুরে উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে ফেসবুকে জঘন্য অপপ্রচার ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে পোষ্টদাতা যুবক গ্রেফতার

মো:পুরে উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে ফেসবুকে জঘন্য অপপ্রচার ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে পোষ্টদাতা যুবক গ্রেফতার

মাগুরা প্রতিনিধিঃ

মাগুরা জেলার মোহাম্মদপুর উপজেলার বিশিষ্ট সমাজ সেবিকা,উপজেলা আওয়ামী লীগের মহিলা সম্পাদিকা ও উপজেলা পরিষদের নির্বাচিত ভাইস চেয়ারম্যান বেবী নাজনীনের চরিত্রের ওপর জঘন্য কালিমা লেপন করে ফেসবুকে একটার পর একটা নোংরা পোষ্ট আপলোড করে মানহানী ও রাজনৈতিক ক্যারিয়ারের অপুরুনীয় ক্ষতিসাধন করার অপরাধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইরে দায়েরকুত মামলায় তানভীর রাজু নামে এক যুবককে গ্রেফতার করেছে মোহাম্মদপুর থানার পুলিশ।
মামলার বর্ণনায় জানাগেছে, গ্রেফতারকুত যুবক তানভীর রাজু এলাকায় প্রভাবশালী পরিবারের সদস্য। তিনি ইট ভাটার ব্যবসা করেন। তার আপন ভাই কামরুল হাসান উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক। এই যুবক দীর্ঘদিনধরে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান বেবী নাজনীনের বিরুদ্ধে তার নিজ নামীয় ফেসবুকে জঘন্য ভাষায় আপত্তিকর তথ্য প্রচার করে আসছিলো। এতকরে নির্বাচিত উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান বেবী নাজনীনের মান সম্মানহানী ও রাজনৈতিক ক্যারিয়ার হুমকির মুখে পড়ে।
তানভীর রাজুকে এই জঘন্য নোংরা কাজ থেকে বিরত রাখার জন্য উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান বেবী নাজনীন অনেকবার তাদের বাড়ীতে গিয়ে অভিভাবকদের কাছে নালিশ জানালেও কোন কাজ হয়নি। অত:পরও সে তার নোংরা পোষ্ট দেওয়া বন্ধ না করায় বাধ্য হয়ে বেবী নাজনীন মোহাম্মদপুর থানায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের ২৫,২৬,২৯ ও ৩১ ধারায় একটি মামলা দায়ের করেন। মামলা নং ০৩ তারিখ: ০৩/০৩/২০২৩ ইং।
মোহাম্মদপুর থানার পুলিশ ওই দিনই তানভীর রাজুকে এই মামলায় গ্রেফতান করে আদালতে সোপর্দ করলে বিজ্ঞ আদালত তার জামিনের আবেদন না মন্জুর করে জেল হাজতে প্রেরণের আদেশ দেন। এই বিষয়ে আগামী ১৪/০৩/২০২৩ ইং তারিখে জামিনের শুনানীর দিন ধার্য করা হয়েছে।
এ বিষয়ে উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান বেবী নাজনীন বলেন, ‘আমি একটি পক্ষের রাজনৈতিক প্রতিহিংসার শিকার। তার তানভীর রাজুর সঙ্গে আমার ব্যক্তিগত বা রাজনৈতিক কোনো বিরোধ নেই। কিন্তু দীর্ঘদিন ধরে সে আমার নামে মানহানিকর ও বিভ্রাস্তিমূলক তথ্য প্রচার করে আসছে। তাকে নিবৃত্ত করতে সামাজিক ও পারিবারিকভাবে বহুবার চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়ে শেষে মামলা করেছি। একজন নারীর সম্মানের প্রশ্নে তারা রাজনৈতিক ব্যানারকে হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহার করছে।’ আমি এ বিষয়ে দলীয় সভানেত্রী দেশরতœ শেখ হাসিনার কাছেও বিচার চাইবো।
আওয়ামী লীগের স্থানীয় নেতা-কর্মীদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, মহম্মদপুরে আওয়ামী লীগের রাজনীতি দুটি ধারায় বিভক্ত। আওয়ামী লীগ নেত্রী বেবী নাজনীন ওই আসনের সংসদ সদস্য বীরেন শিকদারের ঘনিষ্ঠ হিসেবে পরিচিত। অন্য পক্ষে অভিযুক্ত যুবকের ভাই উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মো. কামরুল হাসান মাগুরা-১ (শ্রীপুর-সদর) আসনের সংসদ সদস্য সাইফুজ্জামান শিখরের অনুসারী।
মহম্মদপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আবদুল মান্নান বলেন, ছেলেটা আগে থেকেই ওই নেত্রীর নামে এসব লেখে বলে শুনেছেন। এর কোনো বাস্তবতা আছে কি না, তিনি জানেন না। এটা কোনো রাজনৈতিক ইস্যু নয়। তাঁদের ব্যক্তিগত ব্যাপার। তবে লেখার মধ্যে সংসদ সদস্যকে (বীরেন শিকদার) ইঙ্গিত করে যে মন্তব্য করা হয়েছে, তিনি তার প্রতিবাদ জানান। এ বিষয়ে দলীয় ব্যানার ব্যবহার করে মানববন্ধন করাও ঠিক হয়নি বলে তিনি মন্তব্য করেন।
এ দিকে আওয়ামী লীগ নেত্রী ও নির্বাচিত মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান বেবী নাজনীনের সমর্থকরা এই ঘটনার তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন এবং নারী জাতির সম্মানহানী করার অপরাধে আসামী তানভিরের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবী তুলেছেন। একই সাথে দলীয় শৃংক্ষলা ভংগ করে যে সব নেতা, নেত্রী দলীয় ব্যানারে মানববন্ধন করেছেন তাদের বিরুদ্ধে দলীয় শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহনের দাবী তুলেছেন।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2021
ভাষা পরিবর্তন করুন »