1. md.zihadrana@gmail.com : admin :
সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক হয়েও আব্দুর রহিম সরকার রাজনৈতিক দলের ইউপি সভাপতি পদে বহাল! - দৈনিক সবুজ বাংলাদেশ

১৭ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ । রাত ৮:১২ ।। গভঃ রেজিঃ নং- ডিএ-৬৩৪৬ ।।

সংবাদ শিরোনামঃ
সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক হয়েও আব্দুর রহিম সরকার রাজনৈতিক দলের ইউপি সভাপতি পদে বহাল!

সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক হয়েও আব্দুর রহিম সরকার রাজনৈতিক দলের ইউপি সভাপতি পদে বহাল!

মোঃ ইব্রাহিম হোসেন:

সিরাজগঞ্জ কাজিপুর উপজেলার খাসরাজবাড়ীর ৮৩ নং পূর্ব কালিকাপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আব্দুর রহিম সরকার।

অনুসন্ধানে জানায় যায়, তিনি একটি সরাসরি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক হয়েও কেমনে আব্দুর রহিম সরকার একটি রাজনৈতিক দলের ইউপি সভাপতি হলেন?

সরকারি কর্মচারী ( আচরণ) বিধিমালা, ১৯৭৯ এর ২৫ বিধি মোতাবেক সরকারি কর্মচারী কোন রাজনৈতিক দলের বা এর অংগসংগঠনের সদস্য বা এর কোন কার্যক্রমে অংশগ্রহন করতে পারবে না।যদি অংশগ্রহন বা জড়িত হয়, তবে তা অসদাচরণ হিসেবে গন্য হবে এবং এই অসদাচরণ এর দায়ে তার বিরুদ্ধে সরকারি কর্মচারী ( শৃংখলা ও আপীল) বিধিমালা, ২০১৮ অনুযায়ী কর্তৃপক্ষ ব্যবস্থা গ্রহন করতে পারে।

জানা যায় বর্তমান তিনি সিরাজগঞ্জ কাজিপুর উপজেলার নাটুয়ারপাড়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি পদে দায়িত্ব পালন করেছেন।
এই বিষয় নিয়ে ৮৩ নং পূর্ব কালিকাপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ছাত্র ছাত্রীদের সাথে কথা হলে তারা জানান,আমাদের প্রধান শিক্ষক আব্দুর রহিম সরকার স্যার কখনো ক্লাস নেয় না এবং ঠিক মত স্কুলেও আসে না।

অনুসন্ধানে জানা যায়, স্কুলটির সহকারী শিক্ষকগণ আব্দুর রহিম সরকারের বাড়ীতে হাজিরা খাতা নিয়ে এসে স্বাক্ষর করিয়ে নিয়ে যায়, তাছাড়াও প্রয়োজনীয় সকল কাগজপত্র তিনি বাড়ীতে বসেই স্বাক্ষর করেন।

আরো জানা যায়,নাটুয়ারপাড়া ইউনিয়নের সব চেয়ে ক্ষমতাশালী একজন নেতা তিনি, তার কথায় এলাকার সকল শ্রেণীর মানুষ উঠ বস করে।

অনুসন্ধানে উঠে আসে তার বিরুদ্ধে একাধিক অভিযোগ,
তিনি ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগের পদ পদবী ব্যবহার করেই চালিয়ে যাচ্ছে সকল অপকর্ম।

নাটুয়ারপাড়া ইউনিয়নের সকল ওয়ার্ডে আব্দুর রহিম সরকারের নেতৃত্বে চলছে মাদক ব্যবসা ও অনলাইন জুয়া,শুধু তাই না আব্দুর রহিম সরকারের মেয়ের জামাই নিশাদ একজন মাদকের বড় ডিলার ও অনলাইন জুয়া নাটুয়ারপাড়া ইউনিয়নের সকল ওয়ার্ডে নিয়ন্ত্রণ করে থাকে, তার মেয়ের জামাইয়ের মধ্যে পুরা নাটুয়ারপাড়ায় মাদক খুচরা ও পাইকারী বিক্রি হয়।
আরো জানা যায়, আব্দুর রহিম সরকারের ক্ষমতার প্রধান সেফগার্ড হিসেবে কাজ করেন কাজিপুর উপজেলার আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও কাজিপুর উপজেলার চেয়ারম্যান খলিলুর রহমান সিরাজী।

এই বিষয়ে এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গরা জানান, এই আব্দুর রহিম সরকার একজন লেবাসধারী শয়তান, তার অত্যাচার সাধারণ মানুষ অতিষ্ঠ! আরো বলেন, তিনি নাটুয়ারপাড়া ইউনিয়নটা মাদক ও জুয়ার হাট বানিয়ে ফেলেছে,তার মেয়ের জামাই নিশাদকে দিয়েই মাদক ও অনলাইন জুয়ার ব্যবসা নিয়ন্ত্রণ করে।

এই বিষয়ে কথার বলার জন্য আব্দুর রহিম সরকার কে মুঠোফোনে কল দিলে তিনি দৈনিক সবুজ বাংলাদেশ কে বলেন, এটা কাজিপুর বাংলাদেশর সবজায়গার আইন কানুন কাজিপুরে চলে না।
কাজিপুরে একমাত্র প্রিয়নেতা মরহুম মোহাম্মদ নাসিম সাহের তৈরী করা আইন চলে এবং চলবে,তাই আমাদের আইন পাশ করে গেছেন আমাদের প্রিয়নেতা নাসিম সাহেব।

এই বিষয়ে কাজিপুর উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার মোঃ হাবিবুর রহমানের সাথে মুঠোফোনে কথা হলে তিনি দৈনিক সবুজ বাংলাদেশ কে বলেন, কোন সরাসরি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক কখনো রাজনৈতিক দলের সাথে সংক্ষিপ্ত থাকতে পারবে না । তিনি আরো বলেন আমি আমার জেলা শিক্ষা অফিসার স্যারের সাথে কথা বলে এই বিষয়ে তদন্ত করে আব্দুর রহিম সরকারের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থাগ্রহণ করবো।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2021
ভাষা পরিবর্তন করুন »