1. md.zihadrana@gmail.com : admin :
হাটহাজারী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নরমাল ডেলিভারিতেও গুনতে হয় টাকা - দৈনিক সবুজ বাংলাদেশ

১৯শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ । ভোর ৫:৫৪ ।। গভঃ রেজিঃ নং- ডিএ-৬৩৪৬ ।।

সংবাদ শিরোনামঃ
স্বতন্ত্র সাংসদ ওয়াহেদের বেপরোয়া আট খলিফা চৌদ্দগ্রামে পুকুরের মালিকানা নিয়ে মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের উপর হামলা ঋণ খেলাপী রতন চন্দ্রকে কালবের পরিচালক পদ থেকে অপসারন দাবি নীরব ঘাতক নীরব লালমাই অবৈধভাবে ফসলি জমির মাটি নিউজ করতে গিয়ে হুমকি, থানায় জিডি বিশ্বনাথের পৌর মেয়রের বিরুদ্ধে সাত কাউন্সিলরের পাহাড়সম অভিযোগ বিশ্বনাথে ১১ চেয়ারম্যান প্রার্থী’সহ ২০ প্রার্থীর মনোনয়নপত্র দাখিল মুখে ভারতীয় পণ্য বয়কট, অথচ ভারতেই বাংলাদেশি পর্যটকের হিড়িক শার্শায় সন্ত্রাস ও মাদকের বিরুদ্ধে সংবাদ প্রকাশের জেরে সাংবাদিকের উপর হামলা গণপূর্ত অধিদপ্তরের মহা দূর্নীতিবাজ ডিপ্লোমা মাহাবুব আবার ঢাকা মেট্রো ডিভিশনে!
হাটহাজারী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নরমাল ডেলিভারিতেও গুনতে হয় টাকা

হাটহাজারী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নরমাল ডেলিভারিতেও গুনতে হয় টাকা

মোঃ সেকান্দর তুহিন- হাটহাজারী প্রতিনিধিঃ
চট্টগ্রামের হাটহাজারীতে নিম্ন ও মধ্যবিত্ত পরিবার এবং আর্থিকভাবে অসচ্ছল লোকজনের কাছে একমাত্র ভরসাস্থল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স। বেসরকারি অন্যান্য হাসপাতালের তুলনায় ‘সরকারী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে’ তুলনামূলক কম খরচ হওয়ায় ডেলিভারিসহ অন্যান্য সেবা নিতে আসা লোকজনদের গুনতে হয় বকশিশ নামে হাজারের উপর টাকা। তাদের এ ভরসার ভিত এবার নড়েচড়ে বসছে। কারণ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ডেলিভারি রোগী (নবজাতকের মাকে) সেবা পেতে বকশিশ, খুশি করতে গুনতে হয় দুই হাজার, তিন হাজার ও চার, পাঁচ হাজারের অধিক টাকা। শুধু তাই নয়, অন্যান্য রোগিকেও হাসপাতালে ভর্তি হয়ে সুস্থ হওয়ার পর রিলিজ পাওয়ার সময় বকশিশের নামে ৫ শত থেকে শুরু করে কয়েক হাজার টাকা পরিশোধ করতে হয় রোগী ও তাদের স্বজনকে।

সরেজমিনে জানা যায়, উপজেলার মির্জাপুর বালুরটাল এলাকার মো. সামিরুদ্দিনের স্ত্রী নাসরিন সুলতানা নিশুর গত ১১অক্টোবর, মঙ্গলবার দিবাগত রাত দেড়টা নাগাদ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নরমাল ডেলিভারিতে একটি কন্যা সন্তান জন্মগ্রহণ করেন। বকশিশের নামে হাসপাতালের আয়া ও নার্সকে দিতে হয় ১৫শত টাকা। একই রাতে তিনটার দিকে নরমাল ডেলিভারিতে উত্তরমেখল জাফরাবাদ এলাকার মো. আবু ওসমানের স্ত্রী সামিরা জাহান ইভার কোলজুড়ে এক কন্যা সন্তান জন্মগ্রহণ করেন। তাকেও বকশিশের নামে গুনতে হয় দুই হাজার টাকা। শুধু তাই নয়, ওইরাতে গহিরা ফতেনগর এলাকার মো. মহিউদ্দিনের স্ত্রী রিমা আক্তারের নরমাল ডেলিভারিতেও একটি কন্যা সন্তান জন্মগ্রহণ করেন। তার কাছ থেকেও হাসপাতালের আয়া ও নার্সরা বকশিশের নামে ২ হাজার টাকা নেয়। পরে বিষয়টা জানাজানি হলে রিমা আক্তারকে ঐ ২ হাজার টাকা ফেরত দেন হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

এ বিষয়ে জানতে হাটহাজারী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাক্তার সুরজিৎ দত্তকে মুঠোফোনে পাওয়া যায়নি।

এদিকে ১২অক্টোবর, বুধবার বেলা ১২টায় স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের উপসচিব খন্দকার জাকির হোসেন হাটহাজারী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স পরিদর্শনে আসেন।নরমাল ডেলিভারিতে টাকা নেওয়ার বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, টাকা তো নেওয়ার কথা না! ওষুধপত্র যা দেওয়ার এখান থেকে দেওয়া হয়। যেগুলো ওষুধ এখানে নাই, সেগুলো বাইরে থেকে আনা হয় সে ক্ষেত্রে হয়তো টাকা পয়সা নিতে পারে। তবে সরকারি হাসপাতালে কোন ফি দিতে হয় না। ডেলিভারি রোগীর কাছ থেকে টাকা নেওয়ার বিষয়টা কেউ যদি লিখিত অভিযোগ জানায় আমরা তৎক্ষণিক ব্যবস্থা নিব।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2021
ভাষা পরিবর্তন করুন »