1. md.zihadrana@gmail.com : admin :
প্রতিবন্ধি শিক্ষার্থীকে কৃত্রিম পা দিলেন পিরোজপুরের জেলা প্রশাসক - দৈনিক সবুজ বাংলাদেশ

১৮ই এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ । রাত ১১:৩০ ।। গভঃ রেজিঃ নং- ডিএ-৬৩৪৬ ।।

সংবাদ শিরোনামঃ
চৌদ্দগ্রামে পুকুরের মালিকানা নিয়ে মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের উপর হামলা ঋণ খেলাপী রতন চন্দ্রকে কালবের পরিচালক পদ থেকে অপসারন দাবি নীরব ঘাতক নীরব লালমাই অবৈধভাবে ফসলি জমির মাটি নিউজ করতে গিয়ে হুমকি, থানায় জিডি বিশ্বনাথের পৌর মেয়রের বিরুদ্ধে সাত কাউন্সিলরের পাহাড়সম অভিযোগ বিশ্বনাথে ১১ চেয়ারম্যান প্রার্থী’সহ ২০ প্রার্থীর মনোনয়নপত্র দাখিল মুখে ভারতীয় পণ্য বয়কট, অথচ ভারতেই বাংলাদেশি পর্যটকের হিড়িক শার্শায় সন্ত্রাস ও মাদকের বিরুদ্ধে সংবাদ প্রকাশের জেরে সাংবাদিকের উপর হামলা গণপূর্ত অধিদপ্তরের মহা দূর্নীতিবাজ ডিপ্লোমা মাহাবুব আবার ঢাকা মেট্রো ডিভিশনে! ৫ দিন বন্ধের পর আবার সচল বেনাপোল বন্দর
প্রতিবন্ধি শিক্ষার্থীকে কৃত্রিম পা দিলেন পিরোজপুরের জেলা প্রশাসক

প্রতিবন্ধি শিক্ষার্থীকে কৃত্রিম পা দিলেন পিরোজপুরের জেলা প্রশাসক

মোঃ সোহেল মোল্লা, স্বরূপকাঠি প্রতিনিধি (পিরোজপুর)ঃ

জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ জাহেদুর রহমান, বুধবার বিকেলে জেলা প্রশাসকের সম্মেলনে জেলা প্রশাসকের ব্যাক্তিগত উদ্যোগে প্রতিবন্ধি মানসুরা আক্তারকে কৃত্রিম পা উপহার দিলেন। এসময় উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মনিরা পারভীন, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব)আমীনুল ইসলাম, বীর মুক্তিযোদ্ধা এম এ রব্বানী ফিরোজ, পিরোজপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি শফিউল হক মিঠু, সাধারণ সম্পাদক এস এম তানভীর আহম্মেদ।
প্রতিবন্ধি শিক্ষার্থী মানসুরা আক্তার পিরোজপুর সদর উপজেলার ওদনকাঠী গ্রামের আব্দুল মালেক সিকদারের মেয়ে।

প্রতিবন্ধি মানসুরা আক্তার জানান, তাঁর জন্মগত ভাবেই ডান পায়ের হাটুর নিচের অংশ নেই। ছোটবেলা থেকেই অনেক কষ্ট করে লাঠিতে ভর দিয়ে সে চলাফেরা করতো। পুরাতন একটি কৃত্রিম পা নষ্ট হয়ে গেলে তিনি পিরোজপুরের জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ জাহেদুর রহমানের কাছে একটি পা দাবী করেন। যদিও এটি তৈরী করে দেয়া অনেকটা ব্যয়বহুল তাই তিনি পিরোজপুরের ডিসি স্যারের কাছে একটি কৃত্রিম পা এর আবদার করলে তিনি তা রাখার আশ্বাস দেন। পরে চাহিদা অনুযায়ী জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ জাহেদুর রহমান একটি কৃত্রিম পা তৈরী করে দেন। অনেক কৃতজ্ঞতা জানায় পিরোজপুরের ডিসি মহোদয়কে, জেলার সব শ্রেণির মানুষ।

 

পিরোজপুরের জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ জাহেদুর রহমান জানান বিভিন্ন সময়ে মেয়েটি সাহায্য সহযোগীতার জন্য তার কাছে আসতেন,
হঠাৎ একদিন মেয়েটি আবদার করে বলেন আমার চলাচলের জন্য একটি কৃত্রিম পা দরকার। কান্নাজড়িত কন্ঠে একটি কৃত্রিম পায়ের আবদারকে মূল্যায়ন করে তাৎক্ষনিক তার একটি কৃত্রিম পা তৈরীর জন্য বলি এবং সেটি তাকে দেই। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভিশন বাস্তবায়নে পিরোজপুরের জেলা প্রশাসন কাজ করে যাচ্ছে। এ রকম অসহায় মানুষের পাশে থেকে কাজ করে যাবো বলে বক্তব্য দেন জেলা প্রশাসক ।

০১৭৫৮৫৪৫৩৬৬

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2021
ভাষা পরিবর্তন করুন »