1. md.zihadrana@gmail.com : admin :
কক্সবাজারে এনজিওকর্মী রোহিঙ্গা কোটিপতি - দৈনিক সবুজ বাংলাদেশ

১৯শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ । ভোর ৫:৫৯ ।। গভঃ রেজিঃ নং- ডিএ-৬৩৪৬ ।।

সংবাদ শিরোনামঃ
স্বতন্ত্র সাংসদ ওয়াহেদের বেপরোয়া আট খলিফা চৌদ্দগ্রামে পুকুরের মালিকানা নিয়ে মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের উপর হামলা ঋণ খেলাপী রতন চন্দ্রকে কালবের পরিচালক পদ থেকে অপসারন দাবি নীরব ঘাতক নীরব লালমাই অবৈধভাবে ফসলি জমির মাটি নিউজ করতে গিয়ে হুমকি, থানায় জিডি বিশ্বনাথের পৌর মেয়রের বিরুদ্ধে সাত কাউন্সিলরের পাহাড়সম অভিযোগ বিশ্বনাথে ১১ চেয়ারম্যান প্রার্থী’সহ ২০ প্রার্থীর মনোনয়নপত্র দাখিল মুখে ভারতীয় পণ্য বয়কট, অথচ ভারতেই বাংলাদেশি পর্যটকের হিড়িক শার্শায় সন্ত্রাস ও মাদকের বিরুদ্ধে সংবাদ প্রকাশের জেরে সাংবাদিকের উপর হামলা গণপূর্ত অধিদপ্তরের মহা দূর্নীতিবাজ ডিপ্লোমা মাহাবুব আবার ঢাকা মেট্রো ডিভিশনে!
কক্সবাজারে এনজিওকর্মী রোহিঙ্গা কোটিপতি

কক্সবাজারে এনজিওকর্মী রোহিঙ্গা কোটিপতি

মোঃআলম কক্সবাজার প্রতিনিধ।
নানা অপকর্মে ব্যবহার হচ্ছে ইন্সপেক্টরের ৫ গাড়ি
বিলাসবহুল গাড়িতে পুলিশের লোগো ও স্টিকার লাগিয়ে ব্যবহার করছে অপরাধীরা পাজেরো।
কক্সবাজারে এক ট্রাফিক পরিদর্শকের (ইন্সপেক্টর) পাঁচ বিলাসবহুল গাড়িতে পুলিশের লোগো ও স্টিকার লাগিয়ে ব্যবহার করছে এনজিওকর্মী রোহিঙ্গা যুবকের নেতৃত্বে অপরাধী সিন্ডিকেট। গাড়িগুলো নিয়ে নিরাপদে নানা অপকর্ম করে দাঁপিয়ে বেড়াচ্ছে তারা। বিশেষ করে জায়গায়-জায়গায় পরিদর্শকের হস্তক্ষেপ থাকায় উখিয়া-টেকনাফ থেকে ওই এনজিওকর্মী চেকপোস্ট ফাঁকি দিয়ে যাতায়াত করছেন কক্সবাজার শহরসহ চট্টগ্রামেও।
অভিযোগ উঠেছে, এসব গাড়িতে ইয়াবা পাচারসহ নানা অপকর্ম করে যাচ্ছে এ সিন্ডিকেটটি। সম্প্রতি সিন্ডিকেটের প্রধান ট্রাফিক ইন্সপেক্টর (টিআই) আমিনুর রহমান ও তার প্রধান সহযোগী এনজিওকর্মী রোহিঙ্গা যুবক মনসুর, সেলিম ও আব্দুছ সালামের বিরুদ্ধে সংবাদ প্রকাশের পর টিআই আমিন প্রতিবাদ নিয়ে তোড়জোড় শুরু করলেও অন্যরা গা ঢাকা দিয়েছেন।
সূত্রমতে, কক্সবাজার ট্রাফিক বিভাগের ইন্সপেক্টর আমিনুর রহমানের মালিকানাধীন ৫টি গাড়িতে পুলিশের লোগো ও স্টিকার লাগানো রয়েছে। আর এ গাড়িগুলো মাদকসেবন, বিক্রি, নারীদের নিয়ে জলসা, প্রতারণা, টার্গেট করে রাস্তা থেকে যানবাহন ধরে মোটা অঙ্কের বাণিজ্যসহ নানা অপরাধে ব্যবহার করছেন রোহিঙ্গা মনসুর। তিনি একটেড সিস্টার অর্গানাইজেশন রিচ নামের এনজিওতে ফ্লিড অফিসার হিসাবে কাজ করেন। সম্প্রতি বিষয়টি নিয়ে সংবাদ প্রকাশের পর গাড়ি থেকে স্টিকার ও পুলিশের লোগো তুলে ফেলেছেন সিন্ডিকেটের সদস্যরা। টিআই আমিনুর যুগান্তরকে জানান, তার একটি মোটরসাইকেল, একটি নোয়া, একটি পাজেরো, একটি ল্যান।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2021
ভাষা পরিবর্তন করুন »