1. md.zihadrana@gmail.com : admin :
প্রশংসা আর সফলতায় ভাটারা থানার নব নিযুক্তওসি - দৈনিক সবুজ বাংলাদেশ

২৯শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ । রাত ১১:৪১ ।। গভঃ রেজিঃ নং- ডিএ-৬৩৪৬ ।।

সংবাদ শিরোনামঃ
দৈনিক সবুজ বাংলাদেশ এর সাংবাদিক মোঃ আলম আর নেই জমে উঠবে উপজেলা নির্বাচন সাংবাদিক নামে মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে মানববন্ধন সাংবাদিকতায় আপনার জীবন নিরাপদতো ? সাগর-রুনি হত্যা: তদন্ত প্রতিবেদন পেছাল ১০৮ বার ওয়াসার পিপিআই প্রকল্প লুটপাটের মুলহোতা হাসিবুল হাসান নির্দোষ দাবি করেছেন! ঘরে বসে ইনকাম করতে গিয়ে উল্টো লাখ টাকা হারালেন তরুণ! সাবেক পুলিশ কর্মকর্তা বি.করিমের বিরুদ্ধে দখলবাজী ও হয়রানির অভিযোগ মানিকনগরে সমাজ কল্যাণ সোসাইটি উদ্যোগে মতবিনিময় সভা অটোয়াস্থ বাংলাদেশ হাইকমিশন কর্তৃক ‘মহান শহিদ দিবস’ ও ‘আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস’ পালন পিরোজপুর জেলার নেছারাবাদ থানার সন্ধ্যা নদীর ভাংগন ঠেকানো যাচ্ছে না ইট ভাটার কারনে
প্রশংসা আর সফলতায় ভাটারা থানার নব নিযুক্তওসি

প্রশংসা আর সফলতায় ভাটারা থানার নব নিযুক্তওসি

মোঃ মনিরুজ্জামান ঃ

সফলতা দিয়ে শুরু হলো নব যোগদান করা ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের ভাটারা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আবুল বাসার মুহাম্মদ আসাদুজ্জামানের, তিনি ভাটারা থানায় যোগদানের পর থেকেই নিজ যোগ্যতা আর দক্ষতা দিয়ে থানার সচেতন ও সাধারণ এলাকাবাসীর মন জয় করে নিচ্ছেন। সেই সাথে একজন সফল ওসি হিসেবে যত গুণাবলী প্রয়োজন তা তিনি দেখাতে সক্ষম হয়েছেন।

ভাটারা থানায় যোগদানের পর থেকে থানা এলাকা থেকে টাউট-বাটপার ও দালালদের দৌরাত্ম বন্ধ হয়েছে। পুলিশী সেবা গ্রহীতাদের এখন আর দূর্ভোগ পোহাতে হয় না। মাদক বিরোধী অভিযানেও সফল হয়েছেন ওসি আবুল বাসার মুহাম্মদ আসাদুজ্জামান।

ধনী-গরীব সবার জন্য ওসির দরজা সব সময় উন্মোক্ত করেছেন তিনি। সন্ত্রাস, চাঁদাবাজ, মাদক ব্যবসা, ডাকাতি, চুরি, ছিনতাইসহ সকল অপরাধের বিরুদ্ধে সোচ্চার ভুমিকা পালন করছেন অফিসার ইনচার্জ আবুল বাশার মুহাম্মদ আসাদুজ্জামান।

ভাটারা থানায় যোগদান করার পর এলাকার আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ে আলাপ কালে ওসি আবুল বাসার মুহাম্মদ আসাদুজ্জামান বলেন, মানুষের সেবা ও আইন-শৃঙ্খলা রক্ষা করা আমার দায়িত্ব। ওসি হিসেবে যতদিন কর্মরত আছি, ততদিন আইন-শৃঙ্খলা রক্ষার্থে নিরলস ভাবে আমার দায়িত্ব পালন করবো। যাতে করে মানুষ শান্তিতে ঘুমাতে ও স্বস্থিতে থাকতে পারে।

তিনি বলেন, আমি মানবতা ও মানবিক দৃষ্টিকোণ দিয়ে সকল সমস্যা সমাধানের লক্ষ্যে মানুষের কল্যাণে কাজ করতে চাই। কেউ যদি কোথাও সন্ত্রাসী, মাদক ব্যবসা, চুরি, ডাকাতি, চাঁদাবাজি, ছিনতাই করে আর সে ঘটনা যদি পুলিশকে জানানো হয় তাহলে তথ্য দাতার পরিচয় গোপন রেখে তাৎক্ষণিক ঘটনাস্থলে গিয়ে দোষীদের চিহ্নিত করে আইনের আওতায় এনে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করবো।

তিনি আরো বলেন অপরাধ দমনের পাশাপাশি থানায় যোগদান করার পর থানাকে মাদকাসক্ত মুক্ত রাখতে সফল হয়েছেন। গত ৮ ই জানুয়ারি ওসি আবুল বাসার মুহাম্মদ আসাদুজ্জামান মাদকাসক্তদের বিরুদ্ধে চিরুনি অভিযান চালিয়ে সন্দেহ জনক ১০ জনকে গ্রেফতার করে জাতীয় মানসিক স্বাস্থ্য ইনস্টিটিউট হাসপাতাল, শেরে বাংলা নগর, ঢাকায় পরিক্ষার জন্য পাঠালে কর্তব্যরত চিকিৎসক (Dr. Sakila Rahman M Phil) আসামিদের বিষয়ে Cannabinoids (ICT) Positive মর্মে মতামত প্রদান করেন। তাদের বিরুদ্ধে ২০১৮ সালের মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনের ৩৬ (৫) ধরায় মামলা রুজু করেন, ভাটারা থানার মামলা নং- ১৪/১৪, উল্লেখিত আসামিরা হলো। (১) মাহাতাব উদদীন তানভীর, পিতা মোতালেব, থানা, বাউফল, জেলা, পটুয়াখালী।
(২) মেহেদী হাসান রনি, পিতা- আবদুল জলিল তালুকদার, থানা ও জেলা- বরগুনা। (৩) নাহিদুল ইসলাম, পিতা- বাবুল আখন্দ, থানা- আমতলী, জেলা- বরগুনা। অপর মামলায় আসামি হলো (১) রাজিব, পিতা- বাহার, থানা- দাউদকান্দি, জেলা- কুমিল্লা। (২) হুমায়ুন কবির, পিতা- খোকন মিয়া, থানা- ধোবাউড়া, জেলা- ময়মনসিংহ। (৩) অলি উল্লাহ রিজভী, পিতা- মমতাজ উদ্দিন সাজু, থানা- বন্দর, জেলা- নারায়ণগঞ্জ। (৪) মারুফ হোসেন, পিতা- হেদায়েত উল্লাহ, থানা- শাহরাস্তি, জেলা- চাঁদপুর। (৫) শাজাহান, পিতা- মৃত্য হারুন অর রশিদ, থানা- শৈলকুপা, জেলা- ঝিনাইদহ। তাদের বিরুদ্ধেও ২০১৮ সালের মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনের ৩৬ (৫) ধরায় মামলা রুজু করেন, ভাটারা থানার মামলা নং- ১৫/১৫
ওসি আবুল বাসার মুহাম্মদ আসাদুজ্জামান চাকরি জীবনে যে থানায় কর্মরত ছিলেন সেখানেই অসহায় দরিদ্র মানুষের জন্য নিরলস ভাবে কাজ করে প্রশংসিত হয়েছেন । গরীব আর অসহায়ের সহায় বলেই তিনি পরিচিত। পুলিশ সম্পর্কে পালটে দিয়েছেন মানুষের ভ্রান্ত ধারণা।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2021
ভাষা পরিবর্তন করুন »